মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

অফিস সম্পর্কিত

থানা

পরিচিতিঃ কতিপয় ইউনিয়ন নিয়ে থানা গঠিত। ১৮৯৮ সালের ফৌজদারী কার্যবিধির ৪ (১) ধারার সংজ্ঞা মতে পুলিশ ষ্টেশন বা থানা বলিয়া ঘোষিত পুলিশ ষ্টেশন বা থানা বুঝিতে হইবে। এই সম্পর্কে সরকার কর্তৃক ঘোষিত এলাকা একটি থানার অমত্মর্গত হইবে। পুলিশ থানার অধীনে পুলিশ ফাঁড়ি ও পুলিশ ক্যাম্প আছে। কিন্তু সেইগুলি তদমত্মকার্যের কেন্দ্র নহে।

 

1. Thine শব্দ থেকে Thanaশব্দের উৎপত্তি। শাব্দিক অর্থে থানা হচ্ছে সুনিদিষ্ট এলাকা যেখানে পুলিশ আইন শৃঙ্খলা করে।

2.থানা হচ্ছে তদমত্ম ও অনুসন্ধান ইউনিট। ১৯৭২ সনের ৭ই নভেম্বর এক নির্দেশে জেলাকে বিভক্ত করে ছোট ছোট এলাকার মেরুদন্ড বলা যায়।

3. কয়েকটি থানা একটি সার্কেলের অধীন এবং সার্কেল অফিস জেলার পুলিশ সুপারের অধীনে পরিচালিত। এছাড়া মেট্টোপলিটন কমিশনার দ্বারা পরিচালিত ও সহকারী কমিশনার ডেপুটি কমিশনার এর অধীনে পরিচালিত।

 

দপ্তর প্রধানের পদবীঃ

 

থানা প্রধান= অফিসার ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর)

মডেল থানা= সহকারী পুলিশ সুপার (এ.এস.পি)

 

কার্যক্রমঃথানার উল্লেখ্য যোগ্য কার্যক্রমের মধ্যে মামলা রেকর্ড, সাধারন ডায়েরী, দন্ডবিধি ১৫৪ ধারা প্রতিপালন, অপমৃত্যু মামলা, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সনদ পদান, চাকুরীর ভেরিফিকেশন করা, দিনে ও রাতে টহল দেওয়া, মাদকদ্রব্য উদ্ধার, ওয়ারেন্ট তামিল করা ইত্যাদি বজায় রাখা, অপরাধ দমন ও নিয়ন্ত্রন করা, তদমেত্মর ন্যায় বিচার নিশ্চিত করা ইত্যাদি।

 

আওতাধীন অফিসঃথানার আওতায় পুলিশ ফাঁড়ি অথবা পুলিশ ক্যাম্প থাকতে পারে যা এস.আই বা এ.এস.আই দ্বারা পরিচালিত হয়। মেট্টোপলিটন থানা পুলিশের জন্য পৃথক আইন রহিয়াছে।

ছবি

থানা অফিস থানা অফিস



Share with :

Facebook Twitter